২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ১৬ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

ভূঞাপুর-গোপালপুরে আগুন জ্বলবে।

অভিযোগ
প্রকাশিত মে ১৬, ২০২৩
ভূঞাপুর-গোপালপুরে আগুন জ্বলবে।

স্টাফ রিপোর্টার : এলাকায় এমপির পরিবার ও নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপবাদ দিলে এই ভূঞাপুর ও গোপালপুরে আগুন জ্বলবে। ঢাকা ক্লাবে বসে বসে আপনারা আসবেন আর ষড়যন্ত্র করবেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, জাতির জনকের কন্যা তিনি (শেখ হাসিনা) বিশ্বাস রেখে আমাকে এই আসনে মনোনয়ন দিয়েছিলেন। আর আমি এমপি হওয়ার পর দলের জন্য ও এলাকায় অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করেছি। সুতরাং এই আসনে মনোনয়ন পাওয়া নিয়ে আমি কোনো চিন্তাই করি না। যারা মনোয়ন প্রত্যাশী রয়েছেন তাদেরকেও প্রতিযোগী হিসেবে সমকক্ষ মনে করি না।

সোমবার (১৫ মে) রাত ৯টায় টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর ইবরাহীম খাঁ সরকারি কলেজ মাঠে আয়োজিত নেতা-কর্মীদের এক সমাবেশে এসব কথা বলেন টাঙ্গাইল-২ (ভূঞাপুর-গোপালপুর) আসনের সংসদ সদস্য ছোট মনির। পরে এমপির এই বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এতে বিভক্ত আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মী, সমর্থক ও ফেসবুক ব্যবহারকারীরা বিভিন্ন মন্তব্য করছেন।

ছোট মনির বলেন, আজকে তারা নোঙরা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। এই ষড়যন্ত্রের তারা জবাব পাবে, আমরাও বসে থাকব না। আমি একটা পরিবর্তনের ডাক নিয়ে এসেছি-সেখানে কোনো মারামারি-কাটাকাটি হবে না। আর একটা পরিবর্তন করতে এসেছি-কারো মাথায় বারি দিয়ে জমি নেওয়ার জন্য নয়, কারো ক্ষতি করার জন্য নয়। তারা ভেবেছে আমরা কানা-আতুর হয়ে গেছি।

তিনি হুঁশিয়ার করে দিয়ে বলেন, আপনারা সাবধান হয়ে যান। মানুষকে সম্মান করলে মানুষ সম্মান করবে। যারা দল করে না, দলের আদর্শ-বিশ্বাস করে না তারাই এসব কার্যকলাপ করে।

এদিকে আসন্ন জাতীয় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে টাঙ্গাইল-২ (গোপালপুর-ভূঞাপুর) আসনে আওয়ামী লীগে বেশ কয়েকজন মনোনয়ন প্রত্যাশী হওয়ায় নিজেদের মধ্যে কোন্দল শুরু হয়েছে। এতে প্রকাশ্যে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ছে নেতা-কর্মী ও সমর্থকরা। এছাড়া এমপি ছোট মনিরের বড় ভাই টাঙ্গাইল শহর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি গোলাম কিবরিয়া বড় মনিরের বিরুদ্ধে কিশোরীর ধর্ষণ মামলায় ভূঞাপুরে পক্ষে-বিপক্ষে মিছিল ও সমাবেশ হয়েছে।

টাঙ্গাইল-২ (ভূঞাপুর- গোপালপুর) আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য ছোট মনির ছাড়াও ঢাকা ক্লাবের সভাপতি ও সাবেক এমপি খন্দকার আসাদুজ্জামানের ছেলে খন্দকার মশিউজ্জামান রোমেল, ভূঞাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পৌর মেয়র বীরমুক্তিযোদ্ধা মাসুদুল হক মাসুদ, গোপালপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ইউনুছ ইসলাম তালুকদার ঠান্ডুসহ আরও কয়েকজন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী। তারা নিজ নিজ নেতা-কর্মী ও সমর্থক নিয়ে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। এর ফলে বিভিন্ন সময় এ নিয়ে কোন্দল ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটছে।

Please Share This Post in Your Social Media
February 2024
T W T F S S M
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
272829