১০ই জুন, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ২৭শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ২১শে জিলকদ, ১৪৪৪ হিজরি

টাঙ্গাইলে রোগীকে অজ্ঞান করতে গিয়ে মৃত্যুর অভিযোগ।

editor
প্রকাশিত মার্চ ১৯, ২০২৩
টাঙ্গাইলে রোগীকে অজ্ঞান করতে গিয়ে মৃত্যুর অভিযোগ।

টাঙ্গাইলে রোগীকে অজ্ঞান করতে গিয়ে মৃত্যুর অভিযোগ।
—————————————
স্টাফ রিপোর্টার : টাঙ্গাইলে অপারেশনের সময় অজ্ঞান করতে অতিরিক্ত অ্যানেসথেসিয়া প্রয়োগ করায় জায়েদা বেগম (৬০) নামের এক নারীর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে কর্তব্যরত চিকিৎসকের বিরুদ্ধে।
শনিবার (১৮ মার্চ) বিকেলে শহরের জনতা ক্লিনিকে এ ঘটনা ঘটে। জায়েদা বেগম বাসাইল উপজেলার কালিয়া গ্রামের হাসান আলীর স্ত্রী।

এদিকে ঘটনা ধামাচাপা দিতে তড়িঘড়ি করে জায়েদা বেগমকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দেয় ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ। পরে সন্ধ্যায় অজ্ঞান অবস্থায় টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক জায়েদা বেগমকে মৃত ঘোষণা করেন।

জায়েদার পরিবার জানায়, সকালে জরায়ু অপারেশনের জন্য টাঙ্গাইল শহরের জনতা ক্লিনিকে ভর্তি করানো হয়। ডা. আখলিমা খাতুনের তত্ত্বাবধানে বিকেলে অপারেশন করার সময় জায়েদা বেগমকে অজ্ঞান করা হয়। পরে তার আর জ্ঞান না ফেরায় ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করানোর পরামর্শ দেন।
পরে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে জায়েদা বেগমকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসকরা তাদের জানিয়েছেন অতিরিক্ত অ্যানেসথেসিয়া প্রয়োগের কারণেই তার মৃত্যু হয়েছে।
এ বিষয়ে জনতা ক্লিনিকের মালিক নবাব আলীর সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, ‘এখানে আমার কোনো দোষ নেই। ডাক্তার রোগী ভর্তি করেছেন, আবার ডাক্তারই নিয়ে গেছেন। এটা ডাক্তারের বিষয়। আমি শুধু ডাক্তারকে টাকা দেই এ পর্যন্তই। এরপরই তিনি সাংবাদিকদের ওপর ক্ষেপে যান।
টাঙ্গাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল ছালাম মিয়া জানান, এ বিষয়ে অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media
June 2023
T W T F S S M
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
27282930