২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ১৫ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

চলন্ত ট্রেনের টয়লেটে ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা, আটক ১

অভিযোগ
প্রকাশিত জুন ২১, ২০১৯
চলন্ত ট্রেনের টয়লেটে ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা, আটক ১

অভিযোগ ডেস্ক :: চলন্ত বাসে ধর্ষণের একাধিক ঘটনা ঘটেছে। এবার ট্রেনের টয়লেটে ধর্ষণচেষ্টার ঘটনায় মমিনুল ইসলাম (২৬) নামের একজনকে আটক করে জেলা হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। বাংলাদেশ রেলওয়ে ঈশ্বরদী জিআরপি থানা পুলিশ আজ শুক্রবার দুপুরে আটক মমিনুলকে নাটোর আদালতে প্রেরণ করে। তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জের থানাতলার আব্দুর ফিলিসের ছেলে।

মামলার এজাহার সূত্রমতে, গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা আন্তঃনগর সিল্কসিটি এক্সপ্রেস ট্রেনে সন্ধ্যায় সিরাজগঞ্জের শহীদ ক্যাপ্টেন মনসুর আলী রেলওয়ে স্টেশন থেকে রাজশাহীতে যাওয়ার জন্য ৮ম শ্রেণীর ওই ছাত্রী তার খালার সঙ্গে ‘ঝ’ বগিতে ওঠেন। রাত আনুমানিক ৮টার দিকে ট্রেনটি ঈশ্বরদী বাইপাস স্টেশন অতিক্রমকালে ওই ছাত্রী টয়লেট ব্যবহার করে বের হওয়ার সময় ওই যুবকটি ধাক্কা দিয়ে তাকে টয়লেটের ভেতরে নেন। তারপর মুখ ধরে ধর্ষণের চেষ্টা চালান। বেশ কিছুক্ষণ পার হলেও মেয়েটি সিটে ফিরে না আসায় খালা টয়লেটের কাছে যান। অনেকক্ষণ ধরে দরজায় ধাক্কা দিয়ে ডাকাডাকি করলেও দরজা খুলছিল না। পরে ট্রেনের অন্যান্য যাত্রীরা এসে দরজা ভেঙে ফেলার হুমকি দিলে দরজা খোলা হয়। মেয়েটির কান্না দেখে ও ঘটনা শুনে মমিনুলকে উত্তম-মাধ্যম দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেন যাত্রীরা। পেশায় তিনি কাঠমিস্ত্রি। ঢাকা থেকে নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন। তিনি নিজেকে এক সন্তানের বাবা বলে দাবি করেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ঘটনার সময় ট্রেনে কর্তব্যরত পুলিশের এসআই উজ্জ্বল জানান, ট্রেনযাত্রীদের হাত থেকে ধর্ষণের চেষ্টাকারীকে আটক করে রাজশাহীর জিআরপি থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

রেলওয়ে ঈশ্বরদী জিআরপি থানার ওসি সুবির দত্ত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ধর্ষণচেষ্টাকারীকে রাজশাহী থেকে ঈশ্বরদীতে আনা হয়। ভুক্তভোগী ওই ছাত্রীর খালা বাদী হয়ে নারী ও শিশু আইনে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। আটককারীকে নাটোর আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media
February 2024
T W T F S S M
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
272829