২রা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ১৯শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১১ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি

পদ্মায় অবাধে বালু উত্তোলন, হুমকিতে নদী রক্ষাবাঁধ

অভিযোগ
প্রকাশিত জানুয়ারি ১৮, ২০২৩
পদ্মায় অবাধে বালু উত্তোলন, হুমকিতে নদী রক্ষাবাঁধ
Spread the love

 

স্টাফ রিপোর্টার পাবনা ; পাবনার সুজানগর উপজেলায় পদ্মা নদীতে অবাধে বালু উত্তোলনের মহোৎসব চলছে। শীত মৌসুমে নদী শুকিয়ে যাওয়া ভেকু মেশিন দিয়ে বালু তুলে অন্যত্র নিয়ে যাচ্ছে প্রভাবশালীরা।

সরেজমিনে দেখা গেছে, উপজেলার সাতবাড়িয়া, নাজিরগঞ্জ, গুপিনপুর, বরখাপুর ও ভাটপাড়ায় প্রকাশ্যে দিনের আলোতেই চলছে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন। দিনের আলোতে নয়, রাতেও চলছে বালু উত্তোলন। উপজেলার অন্তত দশটি পয়েন্টে প্রতিদিন বিক্রি হচ্ছে লাখ লাখ ঘনফুট বালু।

স্থানীয়দের অভিযোগ, বালু উত্তোলনের নেতৃত্ব দিচ্ছেন জেলা পরিষদের সদস্য আহমেদ ফরুক কবির বাবু, সুজানগর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহিনুজ্জামান শাহীন ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল ওহাবসহ একটি প্রভাবশালী মহল।স্থানীয় সিদ্দিক (৫০) নামের একজন জানান, ৮-১০ জায়গায় ভেকু মেশিন দিয়ে ৪০-৫০টি বালুবাহী ট্রাকের সাহায্যে এ বালু উত্তোলন চললেও এসব দেখার কেউ নেই। অবাধে বালু উত্তোলনের কারণে নদীর পাড়ে শুরু হয়েছে ভাঙন। হুমকির মুখে পড়েছে নদী রক্ষাবাঁধ।

শামীম নামের একজন জানান, এ নদী ভাঙনে নদীগর্ভে বিলীন হওয়া জমির মালিকদের ক্ষতিপূরণ না দিয়ে জোর করেই বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। এ নিয়ে প্রতিবাদ করলেই জমির মালিকদের নানাভাবে হুমকি-ধামকি দেয়া হয়।এ সব বিষয়ে সুজানগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল ওহাব বালু উত্তোলনের অভিযোগ অস্বীকার করে পাল্টা অভিযোগের তীর ছুড়লেন স্থানীয় সংসদ সদস্য আহমেদ ফিরোজ কবির ও উপজেলা চেয়ারম্যান শাহিনুজ্জামান শাহিনের বিরুদ্ধে।

বালু উত্তোলনের অভিযোগের বিষয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীনুজ্জামান শাহীনের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তিনি ঢাকা থাকার কারণে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

পাবনা জেলা পরিষদের সদস্য আহমেদ ফররুক কবির বাবু বলেন, আমি জেলা পরিষদের সদস্য। আর আমার ভাই চার বছর ধরে এমপি। এখন আমাদের নাম ব্যাবহার করে কেও যদি অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে তাহলে আমাদের করার কিছু নেই।সুজানগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তরিকুল ইসলাম বলেন, বালু উত্তোলনের বিষয়টি জেনেছি। আমরা কয়েকটি বালুর পয়েন্টে অভিযান পরিচালনা করেছি। আমাদের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

February 2023
T W T F S S M
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28