৫ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১লা জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

পূজার কেনাকাটায় জমজমাট শাঁখারীবাজার, ব্যস্ত প্রতিমাশিল্পীরাও

অভিযোগ
প্রকাশিত অক্টোবর ৩, ২০২১
পূজার কেনাকাটায় জমজমাট শাঁখারীবাজার, ব্যস্ত প্রতিমাশিল্পীরাও
Spread the love

হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা শুরু হচ্ছে আগামী ১১ অক্টোবর। শারদীয় দুর্গোৎসবের আগে তাই রঙ ছড়াচ্ছে পুরান ঢাকার শাঁখারীবাজার। পূজার আগে মা দুর্গাকে সাজাতে, কেনাকাটায় ব্যস্ত সময় পার করছেন হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা। শাঁখারীবাজার থেকে শাখা, শঙ্খ, প্রতিমা কাপড়, কিত্তনের মালা, কদম মালা, ঘণ্টা, ঘট, প্রদীপ, আগরদানি, ঠাকুরের মালা, জবের মালা, মুকুট, ধুতি, পাঞ্জাবিসহ পূজার নানা জিনিসপত্র কেনাকাটা করছেন তারা।

শনিবার সরেজমিনে দেখা যায়, শাঁখারীবাজারের দোকানে দোকানে জমজমাট বেচাকেনা চলছে। পূজা উপলক্ষে ঢাকার আশপাশের বিক্রেতারা পূজার বিভিন্ন উপকরণ ও জিনিসপত্র পাইকারি কিনে নিচ্ছেন। এছাড়া হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা তাদের পরিবারসহ ঢাকার বিভিন্ন স্থান থেকে এসে কেনাকাটা করছেন। তবে এসময় ক্রেতা ও বিক্রেতাদের স্বাস্থ্যবিধি পালনে উদাসীনতা দেখা গেছে।

ব্যবসায়ীরা জানান, এবার বেশ ভালোই বেচাকেনা হচ্ছে। ৬ অক্টোবর শুভ মহালয়া শুরু হওয়ার পর থেকে বেচাকেনা আরও বাড়বে।

মা তারা ভান্ডারের স্বত্বাধিকারী রাজন সেন জাগো নিউজকে বলেন, মহামারির কারণে গত বছর বেচাকেনার খুব খারাপ অবস্থা ছিল। এবার ভালো বেচাকেনা হচ্ছে। দূর-দূরান্ত থেকে ক্রেতারা আসছেন। মহালয়া শুরুর পর থেকে বেচাকেনা বাড়বে বলে জানান তিনি।

শঙ্খ স্মৃতি ভান্ডারের বিধান রায় বলেন, আমরা বিভিন্ন প্রকার শাঁখা, ঘণ্টা, ঘট, প্রদীপ, আগরদানি, ঠাকুরের মালা, জবের মালা সুলভমূল্যে বিক্রি করি। তবে করোনার কারণে মানুষের হাতে টাকা-পয়সা কম। তারপরও গতবারের তুলনায় এবার ভালো ক্রেতা পাচ্ছি।

শাঁখারীবাজারের বাসিন্দা অঞ্জরি রায় এসেছেন পূজার কেনাকাটা করতে। তিনি জানান, গতবার ভালোভাবে কেনাকাটা করতে পারিনি। এবার আসলাম নিজের এবং বাচ্চাদের জন্য কেনাকাটা করতে। মোটামুটি কম দামেই জিনিসপত্র পেয়েছি।

এদিকে দেবী দুর্গার প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন শাঁখারীবাজারের প্রতিমাশিল্পীরা। মাটি দিয়ে সুনিপুণ নৈপুণ্যে দেবীকে সাজাতে প্রতিমাশিল্পীদের ব্যস্ততা ছিল চোখে পড়ার মতো।

শাঁখারীবাজারের শিমুলিয়া শিল্পালয়ের প্রতিমাশিল্পী পল্টন পাল বলেন, এবার চারটা অর্ডার পেয়েছি। তাই ব্যস্ত সময় যাচ্ছে। ৯ তারিখের মধ্যে প্রতিমা বুঝিয়ে দিতে হবে। প্রতিমা তৈরির জন্য ৫০ হাজার টাকা নিয়ে থাকেন বলেও জানান তিনি।

শাঁখারীবাজারের মা শিল্পালয়ের হরিপদ পাল তার এক কারিগর নিয়ে প্রতিমা তৈরি করছিলেন। তিনি বলেন, দুর্গাপূজা এলেই অর্ডার আসে। অন্যান্য সময় তেমন আসে না। তাই এখন কারিগরের সংকট।

আগামী ১১ অক্টোবর দেবী দুর্গাকে বরণ করে নিতে ষষ্ঠী থেকে আরম্ভ করে ১৫ অক্টোবর বিজয়া দশমীর মধ্যে দিয়ে শেষ হবে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের এই দুর্গোৎসব।

December 2021
M T W T F S S
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
2728293031