১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১২ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

জাতীয় শ্রমিকলীগকে বিতর্কিত করিতে আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আলোচনা দোয়া’র আয়োজন করেন ভারপাপ্ত সভাপতি নুর কুতুব আলম মান্নান

অভিযোগ
প্রকাশিত আগস্ট ৩০, ২০২১
জাতীয় শ্রমিকলীগকে বিতর্কিত করিতে আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আলোচনা দোয়া’র আয়োজন করেন ভারপাপ্ত সভাপতি নুর কুতুব আলম মান্নান
Spread the love

পিআইডি রিপোর্ট : গতকাল কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ পার্টি অফিসে জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক ছাড়া আলোচনা মিটিং আয়োজন করে জাতীয় শ্রমিক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নুর কুতুব মান্নান আলম ও কতিপয় কয়েক জন বির্তকিত মিলে।

এক পর্যায় এই খবর পৌছায় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সংগ্রামী সাধারন সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সহ আরো উর্চ্চ মহলে।
তক্ষণাতই হয় ব্যবস্থা, জানা যায় যে জাতীয় শ্রমিক লীগের ভারপাপ্ত সভাপতি নুর কুতুব আলম মান্নান এর সভাপতিত্বে আলোচনা ও দোয়ার আয়োজন করা হয় ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউ. প্রধান অতিথি করা হয় বেগম মুনুজান সুফিয়ান এম.পি ও মন্ত্রী , বিশেষ অতিথি, বীরমুক্তিযোদ্ধা , সহ জাতীয় শ্রমিক লীগের ঢাকাজেলা ও মহানগর উত্তর/ দক্ষিণ কিছু এর বিতর্কিত নেতৃবৃন্দদের নিয়ে।

এক পর্যায়ে এ খবর পৌছায় বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় সংগ্রামী সাধারন সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী জনাব ওবায়দুল কাদের সহ কেন্দ্রীয় উর্চ্চ পর্যায়ের নেতাদের কাছে , এক সময় দুপুর এক ঘটিকার সময় আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় সাধারন সম্পাদক এর নির্দেশে মিটিং বন্ধের নির্দেশ করা হয়, বলা হয় যে জাতীয় শ্রমিক লীগের আংশিক কমিটির যাদের কে পুনাঙ্গ দায়ীত দেয়া হয় তার মাঝে দুই জন মৃত, কিন্তু জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারন সম্পাদক জীবিত, কাজেই দলীয় নিয়ম নীতি উপেক্ষা করে কেন্দ্রীয় পর্যায়ে না জানিয়ে ,দল কে প্রশ্নবিদ্ধ করিতে, সাংগঠনিক নিয়ম এর বাহিরে আংশিক কমিটি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভা করিতে পারে না। কাজেই অতি দুত ব্যানার অপশারন করা হোক এবং আলোচনা সভা বন্ধ করা হোক বলে নির্দেশ করেন আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় সাধারন সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী জনাব ওবায়দুল কাদের এমপি, তিনি বলেন দল কে প্রশ্নবিদ্ধ করিতে যারাই বিতর্কিত করবেন তাদের কে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে সাংবাদিকদের জানান তিনি।

এর বিষয়ে আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় উর্চ্চ পর্যায়ের নেতারা আরো বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভানেত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক দায়ীত দিয়ে এক আংশিক কমিটি দেয়া হয়, কিন্তু জাতীয় শ্রমিকলীগের কেন্দ্রীয় দুই নেতা ইতি মধ্যে মৃত থাকায় সাংগঠনিক ভাবে সকল ক্ষমতার অধিকারি দায়ীতে থেকে যান সাধারন সম্পাদক, কিন্তু এক সময় ভারপাপ্ত সভাপতি দায়ীত পান নুর কুতুব আলম মান্নান , সেখানে সাধারন সম্পাদক জীবিত থাকা অবস্থায় কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে মিটিং সভা করা দল কে বিতর্কিত করা ছাড়া কিছুই না, কাজেই বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী জনাব ওবাদুল কাদের স্যারের নির্দেশে দুপুর এক ঘটিকায় আংশিক কমিটির আলোচনা সভা বন্ধ ঘোষনা করা হয়।

এ বিষয়ে সাংবাদিক রা মুঠো ফোনে জাতীয় শ্রমিকলীগের সংগ্রামী সাধারন সম্পাদক কে জিজ্ঞাসা করিলে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রীর শেখ হাসিনার নির্দেশে আওয়ামীলীগ সরকারের উন্নয়নের ভ্যান গার্ড হয়ে জাতীয় শ্রমিকলীগ কাজ করে যাবে, দলের নির্দেশে যত দিন দায়ীতে আছি কাজ করে যাব, এখানে দলের সার্থে যে সিদ্ধান্ত আসে আমি মাথা পেতে নিব। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নির্দেশে সব সময় মাঠে নামতে প্রস্তুথ জাতীয় শ্রমিকলীগ।
এক পর্যায় গতকাল কেন্দ্রীয় কমিটির মিটিং ও আলোচনা সভার দোয়ার আয়োজনের কথা তাকে জিজ্ঞাসা করিলে তিনি কিছু না বলে ফোন কেটে দেয়।

September 2021
M T W T F S S
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
27282930