পদোন্নতি পেলেন কসবার গরিবের ডাক্তার খ্যাত ইসহাক বাবু

প্রকাশিত: ৬:৫৯ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১৭, ২০১৯

পদোন্নতি পেলেন কসবার গরিবের ডাক্তার খ্যাত ইসহাক বাবু

 

সাইদুল ইসলাম(কসবা প্রতিনিধি)

কসবা উপজেলার আকছিনা গ্রামের কৃতি সন্তান ডা.মো. ইসহাক বাবু,দীর্ঘ দিন কসবা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর মেডিকেল অফিসার হিসেবে কর্মরত ছিলেন,ঐ পদে থাকাকালীন কসবা উপজেলার সর্বস্তরের জনগণের,বিশেষ করে গরীব ও অসহায় রোগীদের ভরসার আরেক নাম ছিলেন ইসহাক বাবু,বর্তমানে তাঁকে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ইউএইচএন্ডএফপিও) হিসেবে পদোন্নতি দিয়ে কিশোরগঞ্জ জেলার অষ্টগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ বদলী করা হয়েছে,তার পদোন্নতিতে কসবার বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ ফেইসবুক সহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।বাংলাদেশ হেলথ এসিস্টেন্ট এসোসিয়েশন, কসবা উপজেলা শাখার সভাপতি জনাব আবু জামাল,পরিবার পরিকল্পনা মাঠ কর্মচারী এসোসিয়েশন এর ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলার সহসভাপতি জনাব আবু নেছার আবেদ সহ সকল সংগঠের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান. উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসারদের জাতীয় সংগঠন(বিডিএমএ)র ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা.এম আনোয়ার হোসাইন বলেন,ডা.মো. ইসহাক বাবু ছিলেন কসবার গরীবের ডাক্তার, উনি রোগীদের কথা মন দিয়ে শুনতেন ফলে উনার ভাল ব্যাবহার ও আচরণেই অর্ধেক রোগী সুস্থ হয়ে যেতেন।উনার পদোন্নতিতে আমরা খুশি হলেও স্যার কসবা থেকে চলে যাবে ভাবতেই কষ্ট হচ্ছে। স্যার এর জন্য আমাদের শুভকামনা থাকবে সবসময়।উল্লেখ্য ডা.মো.ইসহাক বাবু একাধারে একজন চিকিৎসক, কবি,লেখক ও সমাজকর্মী.তিনি পূর্বে ঢাকা ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজে এমবিবিএস স্টুডেন্ট দের লেকচারার ছিলেন,পাশাপাশি উনি নার্সিং ইনস্টিটিউট এ ক্লাস নিতেন,পূর্বে পুরাতন ঢাকায় মাওলা বখলে ফ্রী রোগী দেখতেন,পুরাতন ঢাকায় কালতাবাজারে আল মঈন স্বাস্থ্য কেন্দ্র বিনামূল্যে ঔষধ সহ চিকিৎসা করতেন যা বর্তমানে ও চলমান আছে।এছাড়া আন্জুমান মফিদুল ইসলাম কর্তৃক পরিচালিত বিশ্ব ইজতেমা সহ বিভিন্ন ফ্রী মেডিকেল ক্যাম্প পরিচালনা করছেন।বর্তমানে নিজ গ্রাম আকছিনা মিয়াজী বাড়িতে প্রতি শুক্রবার শতশত গরীব অসহায় রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন,তাছাড় উনার বাবা অবসরপ্রাপ্ত সামরিক বাহিনীর চিকিৎসক জনাব ডা .আব্দুল কাদির মিয়াচান দীর্ঘ পন্চাশ বছর যাবৎ অত্র কসবা এলাকার জনগণকে চিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছেন,ডা.মো.ইসহাক বাবু মনে করেন একজন মানুষ যখন রোগাক্রান্ত হন তখনই সবচেয়ে বেশী অসহায় হয়ে পরেন এবং চিকিৎসক এর সরনাপন্ন হন ,তাই চিকিৎসা সেবা শুধু ব্যাবসা নয়,মানুষের দোয়া পাওয়া,মানুষকে সেবা করে আল্লাহর সুন্তুষ্টি অর্জন করার অন্যতম মাধ্যম।কসবার সর্বাসাধারনের প্রানের দাবী যদি কখনো সুযোগ হয় এবং বর্তমান কসবা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর আরেক গরীবের ডাক্তার জনাব কে এম হুমায়ুন কবির মহোদয়ের পদোন্নতি হয়,তবে তারা এই পদে জনাব ডা. মো.ইসহাক বাবুকে কসবায় দেখতে চান।উল্লেখ তিনি ব্যক্তিগত ভাবে বিবাহিত ও দুই কন্যা সন্তানের জনক,উনার স্ত্রী ও পেশায় একজন চিকিৎসক এবং গাইনী বিভাগে অধ্যয়নরত

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ